টেকনিকাল এসইও

(04) এসইও ফ্রেন্ডলি ডোমেইন নেম ও হোস্টিং সিলেকশন

টেকনিক্যাল seo এর ২য় পর্বে সবাইকে স্বাগতম। আপনি যদি নিজের জন্য অথবা আপনার প্রতিষ্টানের জন্য একটি ব্রান্ডেড ওয়েবসাইট খুলতে চান তাহলে ডোমেইন নেম সিলেকশন ও হোস্টিং সিলেকশন এ অবশ্যই নিম্নোক্ত সাজেশন মেনে চলবেন। কেননা, এ সাজেশনগুলো মেনে ওয়েবসাইট খুললে তা seo এর ক্ষেত্রে কিছুটা হলেও বাড়তি সুবিধা দেবে।

একটি ওয়েবসাইট এর জন্য ডোমেইন নেম সিলেকশন/কেনার গাইডলাইন-

  • ওয়েবসাইট এর জন্য অবশ্যই একটি টপ লেভেল ডোমেইন সেট করে নিবেন। যেমন-. com, .net ইত্যাদি।
  • ডোমেইন কেনার আগে ডোমেইন ডোমেইন এর history দেখে নিবেন, পূর্বে কেউ এ ডোমেইন ব্যবহার করেছে কিনা, করলে ঐ ডোমেইন এর কন্টেন্ট গুগল ইন্ডেক্স আছে কিনা তা চেক করব।
  • পূর্বে ব্যবহৃত ডোমেইন এর history আর্কাইভ হতে দেখে নিতে পারেন।
  • পূর্বে ব্যবহৃত ডোমেইন হলে এর স্পাম স্কোর চেক করে নেব। moz দিয়ে চেক করা যায়। স্পাম স্কোর  ২০ এর বেশি হলে সে ডোমেইন না ক্রয় করাই ভাল।
  • ডোমেইন কেনার সময় ১বছরের বেশি অর্থাৎ ২-৩বছরের জন্য কিনতে পারলে ভাল। এক্ষেত্রে গুগলের ট্রাস্ট অর্জন করা যায়।
  • ডোমেইন নেম এর ক্ষেত্রে numeric number /সংখ্যা পরিহার করার চেষ্ঠা করতে হবে।
  • ডোমেইন এর মধ্যে হাইফেন(-) না থাকাই ভাল, এ বিষয়টা মেনে চলতে পারলে ভাল
  • বড় নামের ডোমেইন সিলেকশন করা মোটেও উচিৎ নয়। ছোট অর্থবোধক ডোমেইন নেম সিলেক্ট করতে হবে।

SEO ফ্রেন্ডলি Domain Name সিলেকশন গাইডলাইন:

এসইও ফ্রেন্ডলি ডোমেইন নেম চয়েজের ক্ষেত্রে সাজেশন হচ্ছে- আপনি যে ধরনের niche site create করতে চাচ্ছেন ঐ niche এর রিলেভেন্ট কিওয়ার্ড ব্যবহার করবেন। ডোমেইন নেম এর মধ্যে একদম হুবহু main keyword ব্যবহারের দরকার নেই।

আপনার পছন্দের ডোমেইনটি হয়ত avalable নাও থাকতে পারে। তাই এক্ষেত্রে একটা ডোমেইন এর আগে পরে সাধারণত কিছু suffix prefix ব্যবহার করে সহজেই avalable ডোমেইন খুজে পাওয়া যায়।

এছাড়াও বিস্তারিত জানতে, ডোমেইন হোস্টিং নিয়ে লেখা আলাদা আর্টিকেল রয়েছে, ঐটা দেখতে পারেন।

ভাল হোস্টং কেনার/সিলেকশন গাইডলাইন:

  1. অবশ্যই একটা ভাল হোস্টিং ব্যবহার করবেন, বাংলাদেশ থেকে হোস্টিং কিনলে exonhost, gotmyhost ব্যবহার করতে পারেন। আর, যাদের ডুয়েল কারেন্সি কার্ড আছে তারা সস্তার মধ্যে namecheap বা godaddy থেকে hosting ভাড়া করতে/কিনতে পারেন।
  2. হোস্টিং এর php কনফিগারেশন কেমন, ব্যান্ডউইথ কেমন, সার্ভার স্পিড কেমন, ব্যাকাপ সুবিধা কেমন তা জেনে নিন
  3. হোস্টিং কেনার আগে Dedicated IP address নাকি shared ip এসব বিস্তারিত জেনে নিন।
  4. Uptime/Downtime কেমন তা হোস্টিং প্রোভাইডারের কাছ থেকে আগেই জেনে নিন। Downtime থাকলে তা এসইও এর ক্ষেত্রে খুব খারাফ প্রভাব ফেলে। তখন, সাইট এর ভিসিটর অন্য সাইটে চলে যায় এবং সাইট গুগল র্যাংক হারায়। ভাল হোস্টিং প্রোভাইডারেরা 99.99% uptime guarantee দেয়। তাই আপনার ওয়েবসাইট এর জন্য একটি ভাল হোস্টিংং ব্যবহার করুন।
এছাড়াও জানুন-
» কিভাবে হোস্টিং এর সাথে ডোমেইন কানেক্ট করতে হয়
» কিভাবে এক হোস্টিং থেকে অন্য হোস্টিং এ ওয়েবসাইট ট্রান্সফার করতে হয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
error: Content is protected !!
Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker