Currently set to Index
Currently set to Follow
Books

Fanus Nouri morium Pdf download

ফানুস মৌরি মরিয়ম pdf download

বই:ফানুস
লেখক:মৌরি মরিয়ম
ছবিয়াল:পুজা বিশ্বাস
পেট্রা অফিস থেকে বের হতে গিয়ে দেখলো লিফটে কোনো সমস্যা হয়েছে, লিফট বন্ধ। নয় তলার উপর থেকে সিঁড়ি দিয়ে নামতে নামতে বড্ড ক্লান্ত লাগছিল। আসলে তার এই ক্লান্তি কি শারীরিক নাকি মানসিক? তার স্বামী এবং ছেলে নিখোঁজ! কোথায় আছে কেমন আছে কেউ জানেনা। পরক্ষণেই খেয়াল হলো ভুল ভাবল সে, প্রিয় এখন আর তার স্বামী নয়। প্রাক্তন হয়ে গেছে। অনুভূতিগুলো প্রাক্তন হয় না কেন?
“ফানুস” মৌরি মরিয়ম এর ষষ্ঠ বই।প্রথমে “মেইড ফর ইচ আদার” নামে খ্যাত ফেসবুকে প্রকাশ পাওয়া উপন্যাসটি বই হিসেবে “ফানুস” নামে প্রকাশিত হয়।বইটি পড়লে বুঝা যাবে যে আগের নামের চেয়ে “ফানুস” নামটির গ্রহনযোগ্যতা বেশি কারন এ নামের সাথে বইয়ের মূল বিষয় একদম মিলে যায়।তা আমি প্রকাশ করব না কারণ আমি চাই সবাই এই নামের যথার্থতা বইয়েই খুঁজে পাক।
একে অন্যের প্রেমে প্রচন্ড পাগল প্রিয়-পেট্রা।নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়াও অনেক ভালো।একজনের বলার আগেই তার মনের কথা জেনে যায় আরেকজন।তাদের ভালোবাসাকে পূর্ণতা দান করে তাদের সন্তান শুদ্ধ। তিনজনের ছোট্ট সংসারে ভালেবাসার অভাব ছিল না। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে তাদের আলাদা করে দেয় প্রিয়র বাবা বাবর খান।তারপর তাদের বিচ্ছেদ ঘটে।প্রিয়র জীবনে স্ত্রী হয়ে আগমন ঘটে নিকিতার।কিন্তু মেনে নিতে পারে না প্রিয়।অন্যদিকে একা হয়ে যায় পেট্রা।শুদ্ধ তরপাতে থাকে তার মা পেট্রার জন্য।
কিন্তু কী এমন হয়ে যায় যে এত ভালোবাসার পরও তারা এভাবে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়? প্রিয় যদি পেট্রাকে এতই ভালোবাসতো তাহলে নিকিতা কেন আসল তার জীবনে?প্রিয় পেট্রা কি এক হতে পারবে? নিকিতারই বা কী হবে?
এসব প্রশ্নের উত্তর পেতে অবশ্যই বইটি পড়তে হবে।
এই বইয়ের প্রধান প্রধান চরিত্র গুলো হল প্রিয়, পেট্রা, নিকিতা, শুদ্ধ আর প্রিয়র বাবা বাবর খান।
পেট্রার ভাষায় অসহায় প্রিয়,কখনো সে ছিল অতুলনীয় প্রেমিক পুরুষ, কখনো নিষ্ঠুর কিন্তু দায়িত্বশীল স্বামী, কখনো অবাধ্য সন্তান আবার কখনো স্নেহময় বাবা।তবে প্রিয়র প্রতি কিছু বিষয়ে প্রচন্ড রাগ আছে আমার।
পেট্রাকে ভাবার সময় যে কথাটি আমার মাথায় আসে সেটা হল সবাই পেট্রা হতে পারে না।উদারতা,পরিপক্বতা আর ধৈর্য এই তিনটি গুণ তাকে উপন্যাসের অন্যান্য চরিত্র থেকে আলাদা করেছে।
বিনা দোষে অন্যের জেদের জন্য বলি হতে হয় নিকিতাকে। বিয়ে নিয়ে অষ্টাদশী নিকিতার সব স্বপ্ন ভেঙে যায় তার দাম্পত্য জীবনে।স্বামীর অবহেলা সহ্য না করতে পেরে কিছু ভুল করলেও পরে তা শুধরে নেয়। তারপরও নানা আঘাতে জর্জরিত হতে থাকে।
শুদ্ধ এ বইয়ের অন্যতম চরিত্র যে তার কথার জাদুতে যেকারো মন জয় করতে পারে।বাবা-মাকে প্রচন্ড ভালেবাসার পরেও ভাগ্যের দোষে তাদেরকে একসাথে পায় না যা তার কোমল মনকে অনেক কাঁদায়।বয়সে ছোট হলেও বয়সের তুলনায় অনেক পরিপক্ব সে।মা-বাবা উভয়ের কথা রাখে সে।অনেক কঠিন বিষয় সহজে বুঝে যায় কিন্তু মাঝে মাঝে অনেক সহজ বিষয়ও বুঝতে পারে না।তার বোকা বোকা কথা সবার মন কারে।এই একটা চরিত্র যার বিরুদ্ধে বিদ্বেষী মনভাবের কাউকে পাওয়া যাবে না।
বাবর খান একটা জটিল চরিত্র। তার একটা জেদ এতগুলো মানুষের জীবন পাল্টে দিয়েছে। একঘেয়েমীতে সবার আগে।
এই প্রধান চরিত্র ছাড়াও রায়ান,প্রিয়াঙ্কা,আনিসা, স্মরণ সহ এই বইয়ের অন্যান্য চরিত্রগুলোও উপন্যাসে ছোট বড় ভূমিকা রেখে গেছে।
বইতে শুদ্ধর প্রতিটি কথা আমার প্রিয় উক্তিতে পরিণত হয়েছে।প্রিয়র পেট্রাকে করা প্রতিজ্ঞা গুলো মন ছুঁয়ে গেছে।বইয়ের শেষ প্যারাটা অসাধারণ লেগেছে।
চমৎকার একটি বই “ফানুস”।বইয়ের চরিত্রগুলো মনের ভেতর গভীরভাবে প্রভাব ফেলে।আর তাদের নিয়ে ভাবতে বাধ্য করে।আর আমি মনে করি এখানেই লেখকের স্বার্থকতা।

pdf-

https://updateguides.com/fanus-mouri-morium-pdf/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker